শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৬:৫৩ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
মেহজাবিনকে ‘ভরে দেয়ার’ হুমকি জীবন নাশের হুমকির মুখে অপূর্ব-মেহজাবিন শিক্ষাঙ্গনে প্রবেশের অনুমতি পেলেন না সানি লিওন-কাল হলো অতীত ! ‘শাহরুখের থেকে আমার পারিশ্রমিক অনেক বেশি’, ‘গর্বিত’ ফারহা খান-কেন এই মন্তব্য? উত্তপ্ত বেনাপোল সীমান্ত, সতর্কতা জারি করেছে বিজিবি! নীল ছবির নায়িকার টাকা নেওয়া যায়, সম্মান দেওয়া যায় না! মালবিকার মৃত্যু নিয়ে প্রশ্ন গহনার! জামাইষষ্ঠীতে সৌরভকে আদরে ভাসালো দর্শনার পরিবার! শাহজালাল বিমানবন্দরে ২ কেজি স্বর্ণসহ দুবাইফেরত যাত্রী আটক অর্থ আত্মসাৎ মামলায় ড. ইউনূসসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে বিচার শুরু! ৩০০০ শিশুর হার্ট সার্জারি করালেন গায়িকা পলক মুচ্ছল!
Uncategorized

একুশে টেলিভিশনে “মুক্ত স্বদেশে মুক্ত নেতা”

জমজমাট ডেস্ক
  • আপডেট সময় : সোমবার, ১০ জানুয়ারী, ২০২২

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবতর্ন দিবস উপলক্ষে একুশে টেলিভিশনের বিশেষ আয়োজন “মুক্ত স্বদেশে মুক্ত নেতা”। অনুষ্ঠানটি সম্প্রচারিত হবে ১০ জানুয়ারি সন্ধ্যা ৬:৩০ মিনিট একুশে টেলিভিশনে। সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নাট্যজন পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অংশ নেন লে.কর্নেল (অব.) কাজী সাজ্জাদ আলী জহির, বীর প্রতীক ও এ কে এম আতিকুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক রাষ্ট্রদূত।

অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে সেই সময়ের স্মৃতিচারণ করেছেন বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ পংকজ ভট্টাচার্য্য। বর্ষীয়ান এই রাজনৈতিক উল্লেখ করেন ১৯৭১ সালে ১৬ ডিসেম্বর পাকিস্তানের সামরিক জান্তা আত্মসমর্পণ করলেও বিজয়ের আনন্দ অপূর্ণ ছিল। স্বাধীনতার রূপকার বঙ্গবন্ধু তখনও পাকিস্তানের কারাগারে বন্দি। স্বাভাবিক কারনেই বাঙ্গালীর সেই আনন্দ পরিপূর্ণ হয়নি। দেশ বিদেশের নানান শক্তি তখন বঙ্গবন্ধুর মুক্তির দাবীতে বিশ্ব জনমত গড়ে তোলে এবং পাকিস্তানের উপর চাপ অব্যাহত রাখে।

সাবেক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আবুল হাসান চৌধুরী ১৯৭২ সালে লন্ডনে বঙ্গবন্ধুর সাহচার্যের স্মৃতিচারণ করেন। তরুন আবুল হাসান চৌধুরী বলেন, এমন দিন লন্ডন দেখেনি। সকালে খবর পান বঙ্গবন্ধু লন্ডন আসছেন। সরকারি দল বিরোধী দলের নেতৃবিন্দ ডজন খানেক বৃটিশ মন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর সাথে দেখা করতে আসেন ক্লারিজ হোটেলে। জনতার চাপে সেদিন ঐতিহ্যবাহী ক্লারিজ হোটেলের প্রটকল নিয়ম বদলে যায়। মানুষের ভালোবাসা শ্রদ্ধায় সেদিন এক ভিন্ন লন্ডন হয়ে উঠে। সাংবাদিক পীর হাবিবুর রহমান স্মৃতিচারণ করেন শশাংঙ্ক শেখর ব্যানার্জির বয়ান থেকে। ১৯৬২ সাল থেকে মি. ব্যানার্জি শেখ মুজিবুর রহমানের সাথে যোগাযোগ রাখতেন। বৃটিশ রয়েল এয়ারফোর্সের কমেট জেট বোয়িং করে দিল্লি হয়ে মুক্ত স্বদেশে ফিরেন বঙ্গবন্ধু। সেই দিন মি.এস ব্যানার্জি বঙ্গবন্ধুর পাশের সিটে বসে লন্ডন থেকে আসেন। বঙ্গবন্ধুর দেশপ্রেম ও কূটনৈতিক দূরদর্শিতা তাকে আবিভূত করে।

পাকিস্তান জেলে বন্দি বঙ্গবন্ধুর নানা স্মৃতি কথা উঠে আসবে আলোচকদের আলোচনায়। এছাড়া ভুট্টর কনফেডারেশনের প্রস্তাব দৃঢ়তার সাথে রাজনৈতিক প্রজ্ঞায় ফিরিয়ে দেন বঙ্গবন্ধু। তাঁর প্রত্যাবর্তনে বিজয়ের লাল সূর্য উদ্ভাসের সাথে উত্তাপে পূর্ণতা পায়। অনুষ্ঠানটি প্রযোজনা করেছেন রুশো রকিব।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ

পুরাতন খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
© All rights reserved © 2018 jamjamat.net
ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট : উইন্সার বাংলাদেশ