সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:২৭ অপরাহ্ন
Uncategorized

জেনিফার-ইমন সাহা সম্পর্কে জড়িয়ে ব্ল্যাকমেইল করছে অভিযোগ ইকবালের

জমজমাট ডেস্ক
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০২০

সুরকার ও সংগীত পরিচালক সত্য সাহার তনয় সংগীত পরিচালক ইমন সাহার সঙ্গে নতুন করে সম্পর্কে জড়িয়েছেন সরকারি নির্মিতব্য ‘আর্শীবাদ’ চলচ্চিত্রের প্রযোজক তাহেরা ফেরদৌস জেনিফার। এমন অভিযোগ প্রযোজক নেতা মো. ইকবালের। তার অভিযোগ- নতুন সম্পর্কে জড়িয়ে জেনিফার এবং ইমন তাকে ব্ল্যাকমেইল করে যাচ্ছেন। এমন অভিযোগে গুলশান থানায় বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) একটি সাধারণ ডায়রি করা হয়। অপরদিকে ইকবালের বিরুদ্ধেও পাল্টা অভিযোগ এনেছেন জেনিফার।

তার অভিযোগের প্রসঙ্গে জানা গেছে, প্রযোজক নেতা মো. ইকবালের বিরুদ্ধে রাজধানীর হাতিরঝিল থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। অভিযোগে তাকে জোরপূর্বক বিয়ে করতে চাওয়া এবং ইন্টারনেটে অশ্লীল ভিডিও বার্তা ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকির কথা উল্লেখ করা হয়েছে। এর পাশাপাশি গত মঙ্গলবার ঢাকার একটি পাঁচ তারকা হোটেলে জেনিফারের সঙ্গে এক ব্যবসায়িক মিটিংয়ে অপ্রীতিকর ঘটনার অভিযোগও ইকবালের বিরুদ্ধে আনা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ইকবালের দাবি ‘আমার বিরুদ্ধে জেনিফার যেসব অভিযোগ এনে জিডি করেছে তা সব মিথ্যা। গত মঙ্গলবার হোটেলে তার সঙ্গে আমার দেখা হয়েছে, কথার এক পর্যায়ে কথা কাটাকাটিও হয়েছে। কিন্তু আমি তার গায়ে কোনো হাত তুলিনি। এসব কিছু মিথ্যে, ইন্ডাস্ট্রিতে আমার বদনাম করার জন্যই এগুলো করা।’

জানা গেছে, চার বছর আগে ইকবালের সঙ্গে জেনিফারের বিয়ে হয়। এটা ছিলো দু’জনেরই দ্বিতীয় বিয়ে। বিচ্ছেদের পর জেনিফার ইকবালের বিরুদ্ধে মামলাও করেছে, তবে ইকবালের দাবি এটা তার বিরুদ্ধে উদ্দেশ্যপ্রনোদিত মামলা। যার কারণে জেনিফার বিভিন্ন সময় টাকাও নিয়েছে।

এ ব্যাপারে ইকবাল বলেন, আমি অসহায় হয়ে পড়েছি। দিনের পর দিন তার এই মনোভাবের আমি অনিরাপদ হয়ে পড়েছি। তিনি বিভিন্ন মেয়েকে নিয়ে কর্পোরেট লেভেলের মিটিংয়ে যান। যাদের নিযে যান ওই মেয়েদেরই একজন জেনিফারের নামে নানা কথা বলেছেন যা ইন্ডাস্ট্রির অনেকেই জানেন। ওই মেয়ের কথা থেকেই তার চরিত্রের আসল রূপ বেড়িয়ে আসে। এ নিয়ে তার সঙ্গে আমার কয়েকবার উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়ও হয়েছে। সম্প্রতি তিনি সংগীত পরিচালক ইমন সাহার সঙ্গে সম্পর্কেও জড়িয়েছেন। এ ব্যাপারে ইমনের সঙ্গে আমার একাধিক কথাও হয়েছে, তারা বিয়ে করবে এমন সত্যতার ভয়েস রেকর্ডও আমার কাছে আছে। তারা দু’জন দুজনকে পছন্দ করে, ভালোবাসে বিয়ে করবে। এরপর জেনিফার নানাভাবে টাকার জন্য আমাকে চাপ দিয়ে আসছে। বিষয়গুলো ইমন সাহাও জানেন। তারা দু’জনে মিলে আমাকে ব্ল্যাকমেইল করছেন। কর্পোরেট পর্যায়ে চলে বলে সবসময় হুমকি ধমকি দিয়ে আসছেন।

বিষয়গুলো নিয়ে জানতে পরিচয় জানিয়ে জেনিফারের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি মিটিংয়ে ব্যস্ত, পরে কথা বলবেন বলে ফোন রেখে দেন। এমনকি বন্ধ পাওয়া গেছে সংগীত পরিচালক ইমন সাহার মুঠোফোন নম্বরটিও।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ

পুরাতন খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  
© All rights reserved © 2018 jamjamat.net
ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট : উইন্সার বাংলাদেশ