সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৩৩ অপরাহ্ন
Uncategorized

জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করেও ঠিকমতো পারিশ্রমিক পাই না: ইমন

জমজমাট ডেস্ক
  • আপডেট সময় : সোমবার, ৪ জানুয়ারী, ২০২১

ফাইট ডিরেক্টর ইমন। শুরুটা ১৯৯৯ সালে রিয়াজ-শাবনূর অভিনীত ‘স্বপ্নের পুরুষ’ ছবি দিয়ে। এখানে তিনি স্টান্টম্যান হিসেবে কাজ করেন। তারপর শুধু এগিয়ে যাওয়ার গল্প। পর্দায় ভিলেনকে যেভাবে ধরাশায়ী করে নায়ক, তার পুরো ছক এঁকে দেন তিনি। পাঁচ শতাধিকেরও বেশি ছবিতে কাজ করেছেন তিনি। ইমন বলেন, ফাইট ডিরেক্টর সালাম ভাইয়ের মাধ্যমে কাজ শুরু করি। তখন থেকেই ফাইট ডিরেকশন হিসেবে কাজ করে আসছি। ২০১৬ সালে ‘রক্ত’ ছবির কাজ করতে গিয়ে কক্সবাজার চেন্নাইয়ের ফাইট ডিরেক্টর রাজেশ এর সাথে পরিচয় করিয়ে দেন সিনেমার ক্যামেরাম্যান শাহীন ভাই। পরে ‘রক্ত’ ছবিতে বেশ কিছু স্টান্টম্যান হিসেবে শর্ট দেই। আমার কাজ দেখে তিনি প্রশংসা করেন। তার সাথে কাজ করার প্রস্তাব দেন এবং আমাকে ইন্ডিয়াতে নিয়ে যায়। তারপর থেকেই তার সাথে কাজ করছি।

যোগ করে ইমন বলেন, তার সাথে এ পর্যন্ত ১৯টি সিনেমায় কাজ করেছি। বাংলাদেশেও মুক্তি পেয়েছে ১২টি ছবি। আমার ফাইট দেখে সবাই প্রশংসা করেছে। সবাই বলে নাম্বার ওয়ান ফাইটার। এতো ঝুঁকি নিয়ে কাজ করি তারপর ঠিকমতো পারিশ্রমিক পাই না। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দেখা যায় ৫টা গ্লাস ভাঙ্গলাম বাট কাজ শেষে বলে আজকে না কালকে টাকাটা নিও। এই হলো বাংলাদেশের কাজের অবস্থা। যেই কাল বললো আর টাকা পাওয়া যায় না। আমাদের ফিল্মে একটা কথা আছে নগদে পেটে ভাত বাকিতে মাথায় হাত।

ফাইট পরিচালনার পাশাপাশি একটানা বিশ বছর ধরে জীবনরে ঝুঁকি নিয়ে স্টান্টম্যান হিসেবে কাজ করছেন তিনি। ইমনের কাজ করা জনপ্রিয় ছবির মধ্যে রয়েছে বোমা হামলা, ঠেকাও মাস্তান, দাদাগিরি, মনের সাথে যুদ্ধ, মান্না ভাই, মায়ের বদলা, বসগিরি ইত্যাদি। নির্মাণাধীন ‘তবুও যেতে হবে’ সিনেমাটি। শখের বসে মিডিয়ায় আসলেও বর্তমানে এটি ইমনের পেশা। নিজেকে প্রমাণ করার মতো বিগ বাজেটের ছবি পাচ্ছেন না ইমন। কাজ জানা সত্ত্বেও কাজ করতে পারছেন না তিনি। সুযোগ দিলে নিজের প্রতিভা জানান দিবেন। ইমন বলেন, বাংলাদেশের কোন লোক যেন বলতে না পারে যে, বাংলাদেশের ফাইট ভালো না। তামিল সিনেমার ফাইট কিভাবে বাংলা ছবিতে করল এই নামটা যেন বাংলার মাটিতে আমার থাকে এটাই আশা। ফাইট শেখানোর একটা ইচ্ছে আছে বাট আমাদের এফডিসিতে এমন কোন জায়গা নেই যেখানে ফাইট শিখাবো। আমার বাসা আশুলিয়া ছোট একটা অফিস আছে কিছু ছেলে মেয়ে আছে এখানে ফাইট শিখে। সামনে ইচ্ছে আছে একটা একাডেমি করার। যেখানে সবাই ফাইট শিখতে পারবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ

পুরাতন খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  
© All rights reserved © 2018 jamjamat.net
ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট : উইন্সার বাংলাদেশ