রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ১২:৩৮ পূর্বাহ্ন
Uncategorized

বিষাদে ঘেরা বিশ সাল, ভরসা একুশ সাল

জমজমাট ডেস্ক
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০

রুহুল আমিন ভূঁইয়া: দু-হাজার বিশ সাল চলচ্চিত্রর বছর হিসেবে অনেকেই স্বপ্ন দেখেছেন। বছরের শুরুতেই আসতে থাকে একের পর এক নতুন ছবির খবর। তবে অচেনা করোনা ভাইরাসে পাল্টে গেল সব হিসেব-নিকেষ। দীর্ঘ পাঁচ মাসেরও অধিক সময় ধরে সিনেমা হল বন্ধ। কবে খুলবে তারও নেই খবর। জানা গেছে, চলতি বছর প্রযোজক পরিচালকরা কেউই ছবি মুক্তি দিতে আগ্রহী নয়। এমন কি অনেকেই নাটক ও ওয়েব সিরিজ নির্মাণে ঝুঁকেছেন। আবার কেউ কেউ পেশা বদল করেছেন। কেউ আবার বেকার হয়ে গ্রামে চলে গেছেন।

দীর্ঘদিন হল বন্ধ থাকায় বড় ক্ষতির সম্মুখীন চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা। লাইট, ক্যামেরা, অ্যাকশনের শব্দ নেই বিএফডিসিতে, রঙিন দুনিয়ার আঁতুর ঘর এখন অনেকটাই সাদামাটা। এদিকে ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে এফডিসির ৩/৪ নম্বর ফ্লোর। কারও কোন বিকার নেই অথচ সবাই ব্যস্ত ব্যক্তিগত ফ্যাসাদ নিয়ে। করোনা বাস্তবতায় বাংলা সিনেমার ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কিত সংশ্লিষ্টরা। চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা মনে করেছিলেন দু-হাজার বিশ সালে ঘুরে দাঁড়াবে নিভে যাওয়া ঢাকাই চলচ্চিত্র। বড় বাজেটের গল্প নির্ভর ছবিগুলো হলবিমুখ দর্শককে আবারও হলমুখি করবে। তবে করোনা ভাইরাসে থমকে গেছে পুরো পৃথিবী। আটকে গেছে জনজীবন। গত দুই ঈদে মুক্তি পায়নি নতুন পুরাতন কোন ছবি। তাই অনিশ্চিত ভবিষ্যতে ঢাকাই চলচ্চিত্র।

চলতি বছর তারকাবহুল বেশ কিছু চলচ্চিত্র মুক্তি পাবার কথা ছিল। তারমধ্যে রয়েছে দেবাশীষ বিশ্বাস পরিচালতি ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ-টু’। এ ছবির মাধ্যমে প্রথমবার জুটি হয়েছেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস ও বাপ্পি চৌধুরী। গত ২০ মার্চ ছবিটি মুক্তির কথা থাকলেও করোনার কারণে থমকে যায়। নাট্যনির্মাতা চয়ানিকা চৌধুরীর প্রথম চলচ্চিত্র ‘বিশ্বসুন্দরী’। ছবিটিতে অভিনয় করেছেন সিয়াম-পরীমনি। গত ২৭ মার্চ ছবিটির মুক্তির তারিখ নির্ধারণ ছিল। তবে করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে পিছিয়ে যায় মুক্তির তারিখ।

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নির্মাতা সৈকত নাসির আলোচিত ‘ক্যাসিনো’ কান্ডের ঘটনা নিয়ে নির্মাণ করেছেন ‘ক্যাসিনো’ চলচ্চিত্র। এ ছবিতে নিরবের বিপরীতে অভিনয় করার মাধ্যমে প্রথমবার নায়ক বদল করলেন আলোচিত শবনম বুবলী। সিয়াম-মীমকে জুটি করে রায়হান রাফি লাইফ টেকনোলজির ব্যানেরে নির্মাণ করছেন সিনেমা ‘ইত্তেফাক’। বহুল প্রতিক্ষীত সিনেমা ‘বিউটি সার্কাস’। একটি সার্কাস দলের সুখ দুঃখের গল্প নিয়ে ছবিটি। এতে অভিনয় করেছেন নন্দিত অভিনেত্রী জয়া আহসান ও ফৌরদৌস। বরগুনার চাঞ্চল্য রিফাত হত্যাকান্ড নিয়ে রায়হান রাফি নির্মাণ করেছেন ‘পরাণ’। ছবিটিতে অভিনয় করেছেন বিদ্যা সিনহা মীম, ইয়াশ রোহান ও শরিফুল রাজ।

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এর গল্প অবলম্বনে নাঈম ইমতিয়াজ নেয়ামূল নির্মাণ করছেন ‘গাঙচিল’। ছবিটিতে অভিনয় করছেন ফৌরদৌস, পূর্ণিমা, দুই বাংলার দর্শকপ্রিয় নায়িকা ঋতুপর্ণা ও আনিসুর রহমান মিলন। প্রয়াত নায়ক মান্নার কৃতাঞ্জলি প্রযোজনার নতুন ছবি ‘জ্যাম’। ছবিটিতে অভিনয় করছেন ফৌরদৌস, ঋতুপর্ণা, আরিফিন শুভ ও পূর্ণিমা। এ ছবিটিও নির্মাণ করছেন নাঈম ইমতিয়াজ নেয়ামূল। পুলিশ এ্যাকশন থ্রিলার গল্পের সিনেমা ‘মিশন এক্সট্রিম’। ছবিটি নির্মাণ করেছেন ফয়সাল আহমেদ ও সানী সানোয়ার। ছবিটিতে অভিনয় করেছেন আরিফিন শুভ, সাদিয়া নাবিলা, ঐশী, সৌমিথ সেন গুপ্ত ও তাসকিন রহমান। গেল রোজার ঈদে ছবিটি মুক্তি পাবার কথা ছিল। পুলিশ এ্যাকশন গল্পে এম রহমান ও নির্মাণ করছেন ‘শান’ চলচ্চিত্র। ছবিটিতে অভিনয় করছেন পূজা চেরি, সিয়াম আহমেদ, অরুণা বিশ্বাস, মিশা সওদাগর ও চম্পা।

শাহীন সুমন পরিচালিত শাকিব-বুবলী অভিনীত ‘বিদ্রোহী’। ছবিটি গেল রোজার ঈদে মুক্তি পাবার কথা ছিল। কিন্তু অচেনা করোনা ভাইরাসের কারণে পাল্টে যায় হিসেব-নিকেষ। কবে নাগাত মুক্তি পাবে তা নিয়ে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা। নাদের চৌধুরী পরিচালিত পূজা চেরি, সজল, রোশান ও মুন অভিনীত ‘জ্বীন’। এ ছবিটিও মুক্তির জন্য প্রস্তুত রয়েছে। অপেক্ষা সিনেমা হল খোলার। দীপংকর দীপন নির্মাণ করেন ‘অপারেশন সুন্দরবন’। ছবিটিতে অভিনয় করেছেন রিয়াজ, নুসরাত ফারিয়া, সিয়াম, রোশান। বদিউল আলম খোকন পরিচালিত নির্মাণাধীন শাকিব খান-নবাগতা জাহারা মিতু অভিনীত সিনেমা ‘আগুন’।

অনন্ত জলিল অভিনীত ব্যয়বহুল ছবি ‘দিন দ্যা ডে’। বাংলাদেশ ও ইরানের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত এই সিনেমাটি পরিচালনা করছেন ইরানি নির্মাতা মুর্তজা অতাশ জমজম। এই ছবিতে অনন্তর বিপরীতে অভিনয় করেছেন তার স্ত্রী বর্ষা। এছাড়াও জায়েদ খানের ‘বাহাদুরী’, সাইমন-পরীমনির ‘নদীর বুকে চাঁদ’, গিয়াস উদ্দিন সেলিম পরিচালিত ‘পাপ-পূণ্য’। এতে অভিনয় করেছেন চঞ্চল চৌধুরী, সিয়াম ও আফাসানা মিমির মতো তারকারা। এফ আই মানিক পরিচালিত ডিপজল-মৌসুমী অভিনীত ‘সৌভাগ্য’। হল খোলার অপেক্ষায় অঞ্জন আইচ পরিচালিত ‘আগামীকাল’। এ ছবির মাধ্যমে প্রথমবার জুটি হলেন ইমন-জাকিয়া বারী মম। ডিপজলের ‘এ দেশ তোমার আমার’ সিনেমা হল খোলার প্রথম সপ্তাহে ছবিটি মুক্তি দেওয়ার জন্য প্রস্তুত রয়েছে। কয়েকটি ছবির শূটিং ছাড়া বাকি ছবিগুলো মুক্তির জন্য প্রস্তুত। তবে কবে নাগাত পৃথিবী সুস্থ হবে এবং আলোর মুখ দেখবে ছবিগুলো সেটিই দেখার অপেক্ষা।

এদিকে বছর শেষ হতে বাকি মাত্র তিন মাস সাতাশ দিন। এখনও সিনেমা হল খোলার সিদ্ধান্ত হয়নি। এই ছবিগুলোও শিগগির পরিস্থিতি ভালো না হলে আগামী বছর মুক্তি দেওয়ার পরিকল্পনা করছেন প্রযোজকেরা। নির্মাণধীন ‘আগুন’ ছবির পরিচালক খোকন জমজমাটের একান্ত সাক্ষাতকারে বলেছিলেন, ‘দীর্ঘ দিন সিনেমা হল বন্ধ। এখন সিনেমা তৈরি হচ্ছে না। কিছু সিনেমা সেন্সর হয়ে মুক্তির জন্য প্রস্তুত। তবে এই মুহূর্তে কেউ সিনেমা হলে যাবে না। সামাজিক দূরত্ব মানতে হবে। সেটি সিনেমা হলে সম্ভব নয়। হলে সেই ব্যবস্থাও নেই। সিটের সাথে সিট লাগানো। আগে জীবন তারপর বিনোদন। করোনা সবাইকে নাকাল অবস্থা করে দিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে হল খুঁলে দিলেও কেউ হলে যাবে না।’ দীর্ঘদিন যাবত বন্ধ রয়েছে সিনেমা হল। বন্ধ হওয়া হলগুলো নতুন করে না খোলারই আশংঙ্কা। এমন বাস্তবতায় ঢাকাই চলচ্চিত্রর ভবিষ্যত নিয়ে শঙ্কিত সিনেমা সংশ্লিষ্টরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ
© All rights reserved © 2018 jamjamat.net
ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট : উইন্সার বাংলাদেশ