শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:২৯ পূর্বাহ্ন
Uncategorized

মিজানুর রহমান আজহারির ভিডিও বার্তা শেয়ার করে জিহাদের ডাক দিলেন যে নারী

জমজমাট ডেস্ক
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ১ এপ্রিল, ২০২১

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে যোগ দেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মোদির সফরকে ঘিরে সরকার রাষ্ট্রবিরোধী চক্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে, ওয়াজের নামে ভিডিও ক্লিপ ছড়িয়ে দিয়ে শেখ হাসিনা সরকারের বিরুদ্ধে জেহাদের ডাক দেয়।

ইংরেজি সাপ্তাহিক ‘ব্লিৎজ’ এর অনুসন্ধানী প্রতিবেদন বলছে, শাহানা রশিদ নামের একজন তার ফেসবুকে বিতর্কিত ইসলামিক বক্তা মাওলানা মিজানুর রহমান আজহারির একটি ভিডিও বার্তা পোস্ট করেন। তাতে মাওলানা আজহারি ভারতের প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে উস্কানিমূলক বক্তব্য দেন। অথচ সরকারের পক্ষ থেকে সাবধান করে বলা হয়েছিল কোন ধরনের উস্কানি, গুজব ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করা হলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

দেশে হেফাজতে ইসলামীর সাম্প্রতিক উগ্র-সাম্প্রদায়িক কর্মকাণ্ড নিয়ে স্বরাষ্টমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল সাংবাদিকদের বলেছেন, তাদের কৌশল ও সম্পৃক্ততায় সাক্ষ যে, বাশের কেল্লা ইতোপূর্বে যেভাবে সন্ত্রাস ও নৈরাজ্য সৃষ্টি করেছে তা একই সূত্রে গাঁথা।

মন্ত্রী বলেন, আমরা গভীরভাবে এ বিষয়ে নজর রাখছি। আমরা কোনও ভাবেই একে বাড়তে দিব না। জঙ্গী গোষ্ঠী সম্পর্কে এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্টমন্ত্রী বলেন, ঘটনার সাথে জড়িতদের দিকে লক্ষ্য করলে দেখা যাবে এরা বিভিন্ন সময় নিষিদ্ধ ঘোষিত জামায়াতে ইসলামের সাথেও কারও কারও সম্পৃক্ততা ছিল। তিনি বলেন, আমরা লক্ষ্য করেছি, এসব জঙ্গী গোষ্ঠীর নেতারা আগে জামায়াতে ইসলামীর সাথে যুক্ত ছিলেন। হরকাতুল জিহাদ, আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের নেতারাও এ সময় জামায়াত- শিবিরের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন।

তিনি প্রশ্ন করেন, কেন সাধারণ মানুষের বাড়িঘর এবং সরকারি সম্পত্তি পুড়িয়ে দেয়া হলো? আমরা ধারণা করছি আগের মতই এবারও স্যাবোটাজের চেষ্টা হয়েছে। এর সাথে জামায়াত-শিবির বা বিএনপি’র সম্পৃক্ততা আমরা খুঁজে দেখছি।

হেফাজতের ২৮ মার্চের কর্মসূচি নিয়ে মন্ত্রী বলেন, হরতাল পালন করা এবং ক্ষত তৈরি করে হরতাল পালন করা এক নয়। তিনি বলেন, ক্ষত তৈরি করা বা জ্বালাও-পোড়াও করার কোন অধিকার তাদের নেই।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ইস্যু তৈরি করে ব্রহ্মনবাড়িয়ায় বাড়িঘর জ্বালিয়ে দেয়া, পুলিশের ওপর আক্রমণ,  এবং ১২-১২ বছরের শিশুকে রাস্তার ওপর মেরে ফেলে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নষ্ট করার অপচেষ্টা করা হয়েছে।

ব্রাহ্মনবাড়িয়া প্রেস ক্লাবে আগুন ধরানো, একজন সাংবাদিককে আহত করা এবং জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানসহ আওয়ামী লীগ ও ছাত্র লীগ নেতা-কর্মীদের বাড়িতে আগুন লাগানোর ঘটনা উল্লেখ করেন মন্ত্রী। বলেন, এসব যদি বন্ধ করা না হয় তবে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।দোষীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা সম্পর্কে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, আমরা ধৈর্য্যের সাথে পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছি। এ বিষয়ে আমরা প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিব।

ব্লিৎজ সাম্পাদক, বরেণ্য সাংবাদিক সালাহ উদ্দীন শোয়েব চৌধুরী হেফাজতের উগ্র কর্মকাণ্ড এবং উস্কানি বিষয়ক তথ্য দিয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইউনিটের সাথে কথা বলেছেন। ব্লিৎজ এর রিপোর্ট থেকে জানা গেছে, শাহান রশিদ মানি লণ্ডারিং ও জঙ্গী অর্থায়নের সাথে জড়িত।

সূত্র: ArtNews.com.bd

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ

পুরাতন খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  
© All rights reserved © 2018 jamjamat.net
ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট : উইন্সার বাংলাদেশ