মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ০৪:৫৫ পূর্বাহ্ন
Uncategorized

ডিজিটাল মাধ্যমের জন্য আলো দেখছি না: মিলন

জমজমাট ডেস্ক
  • আপডেট সময় : বুধবার, ১৯ আগস্ট, ২০২০
ছবি: এম এ এইচ সাগর

জনপ্রিয় অভিনেতা ও নির্মাতা আনিসুর রহমান মিলন। ঈদুল আযহায় বেশ কিছু নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি। এবং ঈদে তিনটি নাটক পরিচালনা করেছেন। নাটক তিনটি থেকে বেশ সাড়াও পাচ্ছেন মিলন। ঈদের ছুটি কাটিয়ে এরইমধ্যে শুটিংয়ে ফিরেছেন। কাজ করছেন শাহীন সুমন পরিচালিত ‘মাফিয়া’ ওয়েব সিরিজে। তার বিপরীতে রয়েছেন চিত্রনায়িকা মৌ খান। ওয়েব সিরিজ ও সমসাময়িক প্রসঙ্গে কথা বলেন জমজমাটের সাথে। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন- রঞ্জু সরকার

ওয়েব সিরিজের চরিত্রটি নিয়ে জানতে চাই-

৩১টি পর্ব মিলে একটা সিজন। ৩১টি পর্বের মধ্যে প্রথমটি ‘মাফিয়া’। আমার চরিত্রটি আন্ডারওয়ার্ল্ডের ডনের চরিত্র। নাম সুকান্ত। বাংলাদেশের বিভিন্ন খুনিদের প্রতিচ্ছবি ‘মাফিয়া’। কাল্পনিক গল্পে নির্মিত হচ্ছে। সুকান্ত ঠান্ডা মাথার খুনি যে বড় ভাই জাহিদ হাসানের কথায় চলে। অনেক সময় জাহিদ ভাইও আমার কাজ করে দেয়। একটা সময়ে রুপ পরিবর্তন হতে দেখা যাবে। একদিন ক্রিকেটার একটি ছেলের সাথে দেখা হয় ছেলেটি খুবই বদমেজাজী। চরিত্রটি করছে শ্যামল মাওলা। একটা পর্যায়ে সিনেমার এক নায়িকার প্রেমে পড়ি। আমার পাওয়ারে নায়িকাও চলে। সুকান্ত সত্যিই প্রেমে পরে যায় যা নায়িকাকে বোঝাতে অনেক কষ্ট হয়। সুকান্তদের জীবন বলতে কিছু নেই। তারপরও সুকান্তকে নিয়ে স্বপ্ন দেখেন মৌ খান। স্বপ্ন দেখেন ঘর বাঁধার। এক সময় জাহিদ ভাই জানতে পায়। শ্যামল বড় ভাইয়ের হাতছানিতে আমার পজিশন নেওয়ার পরিকল্পনা করেন। ঘটতে থাকে নানা ঘটনা। এভাবেই গল্পটি এগিয়ে যাবে।

সম্প্রতি ওয়েব সিরিজ নিয়ে অনেক বির্তক হয়েছে। এই ওয়েব সিরিজটি তার থেকে কতটা আলাদা?

পুরোটাই আলাদা। যতটুকু দেখার পরিবেশ তৈরি হয়েছে ততটুকুই দেখানো উচিত। পুরোটাই দৃষ্টি ভঙ্গি। বাংলাদেশে ওয়েব সিরিজে অভ্যস্ত নয়। যখন পরিবেশ তৈরি হবে তখন এ ধরনের ওয়েব সিরিজ নিয়ে কাজ করা যাবে। দৃষ্টিকোণ থেকে বের না হওয়া পর্যন্ত করা ঠিক হবে না। যারা ওয়েব সিরিজ নিয়ে কথা বলেছে সবাই কিন্তু দেখেছে। মানুষকে আঘাত করা যাবে না। আগে ওয়েব সিরিজের দর্শক তৈরি করতে হবে। এই গল্পে দর্শকের ধাক্কা খাওয়ার সুযোগ নেই। গল্পের প্রয়োজনে গান রয়েছে। শালীনতা বজায় রেখে কাজ হচ্ছে।

মঞ্চ, বড়পর্দা, ছোটপর্দা ও ওয়েব সিরিজ চার মাধ্যমে কাজ করছেন। কোনটি ভবিষ্যতের পদ দেখাবে?

টেলিভিশন সার্বজনীন কখনো শেষ হবে না। টেলিভিশনে দর্শকের মনোযোগ দেওয়া দরকার। বর্তমানে দর্শক অনলাইন মাধ্যমে বেশি নজর দিচ্ছে। বাংলাদেশে এখনও অনলাইন পোর্টালের জায়গা তৈরি হয়নি। ওটিটি সাবস্ক্রাইব করে দেখার দর্শক এখনও তৈরি হয়নি। অনেকেই এ ব্যাপারে অবগত নয়। সাধারণ দর্শককে সহজ করে কিভাবে কনটেন্টটি দেখানো যায় সেই মাধ্যমটি খুঁজে বের করতে হবে। যে ওয়েব সিরিজ নিয়ে সম্প্রতি সমালোচনা হয়েছে তাতে কিন্তু বিঞ্জের লাভ হয়েছে তাদের চ্যানেলটি বির্তকের কারণে দাঁড়িয়ে গেছে। শিল্পীদের কিন্তু লাভ হয়নি। বরং তারা সমালোচিত হয়েছেন। একই রকম বাজেট দিয়ে মানসম্মত গল্প নিয়ে যদি টিভির জন্য নির্মাণ করি তাহলে আমাদের লাভ হতো। প্রত্যেকটি চ্যানেলের ইউটিউব চ্যানেল আছে। টিভি চ্যানেলের মাথায় শুধু ব্যবসায়িক চিন্তা দর্শকের আগ্রহের কথা মাথায় নেই। টেলিভিশনকে গুরুত্ব দিতে হবে। ভালো কাজগুলো টিভিতে আনতে হবে তাহলে দর্শক দেখবে। টিভির জন্য বাজেট দেওয়া হচ্ছে না কিন্তু অনলাইনের জন্য ঠিকই বাজেট দেওয়া হচ্ছে। ভিউ নিয়েও অনেক ঝামেলা আছে। সবাই টেলিভিশন ভুলে যাচ্ছে। ডিজিটাল মাধ্যমের জন্য আলো দেখতেছি না। তবে ইউটিউবে দেখার কারণ হচ্ছে দর্শক সময়ের অভাবে ইউটিউব থেকে নাটক দেখছে। আমার স্বাচ্ছন্দ্যর জায়গা টেলিভিশন। এখন অনেকেই বাধ্য হয়ে অনলাইনের জন্য কাজ করছে। ছোটপর্দায় অনেক মেধাবী নির্মাতা অপেক্ষা করছেন সিনেপ্লেক্সের। ৩০টি সিনেপাক্স থাকলে আজ হয়তো বড় বাজেট দিয়ে ওয়েব সিরিজ নির্মিত হতো না তাহলে এই বাজেট দিয়ে সিনেমা নির্মাণ হতো। একটা সময় এটাও হয়ে যাবে। যখন সারা বাংলাদেশে ২০০ সিনেপাক্স হয়ে যাবে আবার প্রাণ ফিরে পাবে বাংলা সিনেমা। দর্শকের চিন্তা করেই গল্প নির্ভর কাজ হবে। আমি আশাবাদী সেটি ২০২২ এর মধ্যে বাস্তবায়ন হবে।

বর্তমানে শিল্পী সংকট রয়েছে বলে মনে করেন?

হ্যাঁ পুরোপুরি শিল্পী সংকট রয়েছে। তবে আস্তে আস্তে সেটি কমে যাবে। বর্তমানে ক্যারেকটার শিল্পী নেই। চরিত্র নির্ভর শিল্পী তৈরি করতে হবে। ছোট ও বড়পর্দা যখন এক হয়ে যাবে তখন নাটকের অনেক শিল্পীই চলচ্চিত্রে কাজ করবে। আমি আশাবাদী অচিরেই সকল সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ

পুরাতন খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
© All rights reserved © 2018 jamjamat.net
ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট : উইন্সার বাংলাদেশ