শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:৫০ অপরাহ্ন
Uncategorized

ভালো অভিনয়ের ক্ষুধা নিয়ে কাজ করছি: আ খ ম হাসান

জমজমাট ডেস্ক
  • আপডেট সময় : বুধবার, ২৯ জুলাই, ২০২০

রঞ্জু সরকার: দর্শকপ্রিয় অভিনেতা আ খ ম হাসান। ছোটবেলা থেকে অভিনয়ের প্রতি তার এক ধরনের পাগলামী ছিল। তাই সব কাজ বাদ দিয়ে অভিনয় শুরু করেন। সালাউদ্দিন লাভলুর ‘রঙের মানুষ’ নাটকে রাখাল চরিত্রটি তার অভিনয় জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দেয়। তারপর আর পিছু ফিরে তাকাতে হয়নি। কাজ করছেন সমানতালে। এখন নিয়মিতই অভিনয় করে যাচ্ছেন টিভি নাটকে। নাট্যাঙ্গনে আ খ ম হাসান রসিক অভিনেতা হিসেবেই পরিচিত। এ অভিনেতা ব্যস্ত ঈদের নাটক নিয়ে। এরইমধ্যে কাজ করেছেন দর্শকপ্রিয় অভিনেতা ও নির্মাতা শামীম জামানের ‘ক্ষমতা রিটার্ন’ও ‘সাইকেল মেকার,’ ফরিদুল হাসানের সাত পর্বের ধারাবাহিক ‘সুন্দরী বাইদানী’সহ বেশ কিছু নাটকে। আ খ ম হাসান সাধারণ ছুটির পর গত তিন জুন থেকে শুটিং করছেন। ঘরবন্দি সময় কিভাবে কেটেছে জানতে চাইলে এ অবিনেতা বলেন, ‘ব্যস্ততার কারনে নিজ অভিনীত সব নাটক দেখার সময় পেতাম না। ঘরবন্দি হয়ে সে কাজগুলো দেখেছি। এছাড়া অন্যদের কাজও দেখেছি। এছাড়া কিছু চলচ্চিত্র দেখেছি। ঘরে থাকলেও শুটিং খুব মিস করেছি।’

‘ক্ষমতা রিটার্ন’ নাটকটি প্রসঙ্গে জানতে চাইলে জমজমাটকে আ খ ম হাসান বলেন, ‘ক্ষমতা নামে আগে একটি নাটক ছিল। সেটির দর্শকপ্রিয়তা পাওয়ার পর ক্ষমতা রিটার্ন নির্মাণ করা হয়েছে। নাটকটিতে আমাকে দেখা যাবে আমি খুব ক্ষমতাবান। ঘরের বউও ভাবে আমার অনেক ক্ষমতা। তবে একদিন এর আসল রহস্য ফাঁস হয়ে যায়। এভাবেই গল্পটি এগিয়ে যাবে। দর্শক নাটকটি দেখে মজা পাবে। আসছে ঈদের নাটকগুলো নিয়ে অনেক আশাবাদী। আমার বিশ্বাস নাটক কয়টি দর্শকের মনের চাহিদা পূরণ করতে সক্ষম হবে। কারণ, এই নাটকের গল্পগুলোতে অনেক ভিন্নতা আছে। আর যারা অভিনয় করেছেন প্রত্যেকেই যার যার চরিত্রে অসাধারণ অভিনয় করেছেন।’

লকডাউনের আগের আর এখনকার শুটিংয়ের পার্থক্য? ‘অনেক পার্থক্য। সাধারণত ৩০-৪০ জনের বড় একটি টিম নিয়ে কাজ করা হয়। করোনার কারণে সেটি ছোট করে নিতে হয়েছে। শুটিংয়ের আগে শুটিংয়ের জায়গাগুলো পরিস্কার করে নেওয়া হচ্ছে। স্যানিটাইজার ব্যবহার করে মাস্ক পরে সবাই শুটিংয়ে অংশ নিয়েছি। স্বাস্থ্যবিধি মেনেই কাজ করছি। আসলে এ ভাবে কাজ করা সম্ভব নয় তবুও কাজ করতে হচ্ছে।’

সাধারণ ছুটির পর শুটিং শুরু করা নিয়ে পরিচালক-অভিনয় শিল্পীদের অনেকে অনেক ধরনের মত দিয়েছেন। কেউ এখনও শুটিংয়ে অনাগ্রহী। আপনি কী বিবেচনায় কাজ শুরু করলেন? কারা কি মত দিচ্ছেন সেটা তাদের ব্যাপার। আমি কাজের প্রয়োজন অনুভব করছি বলেই শুটিং করছি। তাছাড়া কিছু কাজের পূর্বের কথা দেওয়া যার কারণে করতে হচ্ছে। হাসান যে কোন চরিত্রে কাজ করতে রাজি আছেন। তিনি মনে করেন জীবনটাই স্বপ্ন। তার কোন স্বপ্নের চরিত্র নেই। বলেন, ‘ভালো অভিনয়ের ক্ষুধা নিয়ে অভিনয় করছি। যে কোন চরিত্র মুহূর্তে ধারণ করার চেষ্টা করি।’

চলচ্চিত্র নিয়ে কি ভাবছেন? ‘চলচ্চিত্র নিয়ে কিছু ভাবছি না। কেউ যদি আমাকে নিয়ে কাজ করার আগ্রহ দেখায় আমার মতো করে ভাবে পছন্দ হলে কাজ করবো। আমাকে নিয়ে কেউ কাজ করতে চাইলে আমাকে প্রাধান্য দিয়ে ভাবতে হবে। কয়েক জনের সাথে কথা হয়েছে। দেখা যাক কি হয়।’

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ

পুরাতন খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  
© All rights reserved © 2018 jamjamat.net
ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট : উইন্সার বাংলাদেশ