সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:৩৩ অপরাহ্ন
Uncategorized

আমরা ধর্মান্ধ নই, আমরা ধর্মভীরু : মমতাজ

জমজমাট ডেস্ক
  • আপডেট সময় : বুধবার, ২৯ জুন, ২০২২

রঞ্জু সরকার

সম্প্রতি জাতীয় সংসদে দেওয়া ভাষণে সংসদ সদস্য মমতাজ বেগম বলেছেন, “আমরা ধর্মান্ধ নই, আমরা ধর্মভীরু”। সত্যিই তো: বাংলাদেশের মানুষ একদিকে যেমন আধ্যাতিকটার টানে স্রষ্টার সন্তুষ্টির তাগিদে ধর্ম-কর্ম করেন, ঠিক একইভাবে তাঁরা হৃদয়ের তাগিদে শোনেন, ভেজা জমিনের সুঘ্রান মাখানো বাউল গান, ভাটিয়ালী-মুর্শিদী গান। এসব গানের মাঝে শুধু তাঁরা মনের তৃষ্ণাই মেটান না, এসব গানের প্রতিটি কথার গহীনে ডুব দিয়ে তাঁরা খুঁজে বেড়ান স্রষ্টাকে আর সৃষ্টির রহস্যকে।

মমতাজ বেগম বহুযুগ ধরেই বাংলাদেশের লাখ লাখ মানুষের হৃদয়ে ঠাঁই করে নিয়েছেন তাঁর যাদুকরী কন্ঠের মোহিনী মায়ায়। শুধু বাংলাদেশেই নয়, গোটা বিশ্বের বাংলা ভাষাভাষী কোটি কোটি মানুষের কাছে মমতাজ মানেই বাংলার লোক সঙ্গীতের এক মুকুটবিহীন সম্রাজ্ঞী।

ঢাকার পাশে মানিকগঞ্জ জেলার এক স্বল্প-পরিচিত এলাকা থেকে উঠে আসেন মমতাজ। একের পর এক গান গেয়ে শ্রোতা-ভক্তদের ভালোবাসার শ্রাবনে বারবার প্লাবিত হয়েছেন তিনি। এরপর সঙ্গীতের সামান্য আয় দিয়েই তিনি নিজের এলাকায় চক্ষু হাসপাতাল সহ নানা ধরনের সামাজিক কর্মকান্ড চালাতে থাকেন। তারপর তিনি সম্পৃক্ত হন রাজনীতিতে। একটানা ১৩ বছর তিনি জাতীয় সংসদে আছেন। কিন্তু এর আগে তাঁর কোনো বক্তৃতা এভাবে আলোড়ন তুলতে পেরেছে কিনা আমার জানা নেই। কিন্তু সাম্প্রতিক বক্তব্যের মাধ্যমে মমতাজ বেগম প্রমাণ করলেন, বাংলাদেশের সংস্কৃতির শুধু প্রতিনিধিত্বই নই বরং সঠিক সুযোগ পেলে তিনি বাংলাদেশের সংস্কৃতির উন্নয়নে কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারবেন।

জাতীয় সাংসদে মমতাজ বেগমের বক্তব্য শোনে অনেকেই বলছেন, ওনাকে সংস্কৃতি মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী কিংবা উপমন্ত্রী করা হলে তিনি কেবল সঙ্গীতাঙ্গন নয়, বাংলা সংস্কৃতির প্রসার ও বিকাশে ব্যাপক ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ

পুরাতন খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  
© All rights reserved © 2018 jamjamat.net
ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট : উইন্সার বাংলাদেশ