সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ০১:৪৬ অপরাহ্ন

লুবাবা’র বক্তব্য নিয়ে মুখ খুললেন দিশা’র মা!

জমজমাট ডেস্ক
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২৮ মার্চ, ২০২৪

জমজমাট ডেস্ক

সিমরিন লুবাবা। খুব অল্পবয়সেই বেশকিছু বিজ্ঞাপনচিত্রের পাশাপাশি নাটক ও সিনেমায় অভিনয় করেছে। কিন্তু এই শিশুশিল্পী বিভিন্ন সময়ে সাক্ষাৎকারের মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনার জন্ম দিলেও নিজের যোগ্যতা বা কাজ দিয়ে আলোচনায় আসতে পারেনি। নাটক, সিনেমা, বিজ্ঞাপনচিত্র বা অন্য কোনো জায়গায় নিয়মিত দেখা না গেলেও বিভিন্ন টিভি চ্যানেল বা ইউটিউবারদের সাক্ষাৎকারে নিয়মিত দেখা যায় তাকে। মূলত সাক্ষাৎকারের প্রশ্নে সঠিক উত্তর না দেওয়া বা অতিরিক্ত পাকনামির কারণেই প্রায়ই সে সমালোচনা ও বিতর্কের তুঙ্গে থাকে।

সম্প্রতি আরও একটি সাক্ষাৎকারের মাধ্যমে ফের সমালোচনার মুখে এই ভাইরাল শিশু শিল্পী। জনপ্রিয় শিশু শিল্পী দিশা মনিকে উদাহরণ দিয়ে সাংবাদিক এক প্রশ্ন করলে দিশাকে চিনতে না পেরে উল্টো সাংবাদিককেই প্রশ্ন করে বসে লুবাবা। অথচ তারা এক সঙ্গে কাজও করেছে। উত্তরের একপর্যায়ে টিকটকার দাবি করে চিনতে পারে লুবাবা।

সাক্ষাৎকারে লুবাবা’র এমন মন্তব্য চোখে পড়ে দিশা মনির মা রিমা ইসমাথ ডেইজি’র। এরপর ক্ষোভ প্রকাশ করে নিজের ফেসবুকে দীর্ঘ স্ট্যাটাস দেন তিনি। স্ট্যাটাসে লুবাবা’র পারিবারিক শিক্ষা ও তার ঝুলিতে কয়টি নাটক সিনেমা আছে – এমন প্রশ্ন তোলেন দিশা’র মা।

স্ট্যাটাসে লুবাবা’র প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে দিশা’র মা ডেইজি লিখেন, দিশা’র ২০০+ নাটক, সিনেমা, বিজ্ঞাপন রয়েছে। দিশা ৩ বছর বয়স থেকে কাজ করে শিশুশিল্পী হিসেবে। এই মেয়ে ইন্টারভিউতে দিশাকে চিনে না, দিশাকে টিকটকার বলে। আমি জানতে চাই লুবাবা’র ঝুলিতে কয়টা নাটক, সিনেমা আছে?। দিশা’র সাথে অনেক আগে থেকে পরিচয়, বিজ্ঞাপনে একসাথে শুটিংও করেছে। মিট ও হয়েছে তাদের। দিশা কে সে ভালো করেই জানে।

অতীতের কথা টেনে তিনি স্ট্যাটাসে আরও লিখেন, দিশাকে দেশ টিভির একটা ইন্টারভিউ তে প্রশ্ন করা হয়েছিলো – লুবাবা কেন্দে দিয়েছি যে বললো এটা নিয়ে কি বলবা ?। দিশা বলেছে আমরা ছোটো মানুষ আমাদের ভুল হতেই পারে এটা নিয়ে এত বড় করে দেখার কিছু নেই। তিনি আরও বলেন, একটা নাটকে দিশাকে ডায়ালগ দিয়েছিলো ‘কেন্দে দিয়েছি’, সেখানে দিশা ডায়ালগ দেয়নি, এটা নিয়ে ডিরেক্টর এর সাথে আমার ক্যাচাল হয়, কারন দিনশেষে তারা কো আর্টিস্ট।

দিশা’র মা স্ট্যাটাসে উপদেশ ও পারিবারিক শিক্ষা নিয়ে বলেন, কাউকে ছোটো করে কেউ উপড়ে উঠতে পারেনা। পারিবারিক শিক্ষাটা আসল। রানু মন্ডল, কাঁচাবাদাম ওয়ালাও ভাইরাল হয়েছে কিন্তু ভাইরাল এক জিনিস, জনপ্রিয়তা এক জিনিস। দিশা সবার ভালোবাসার, তাকে সবাই ভালোবাসে। দিশা বাংলাদেশের এক নাম্বার জনপ্রিয় শিশুশিল্পী যাকে কোটি মানুষ ভালোবাসে।

এই পোস্টের কমেন্ট বক্সে অনেক নেটিজেনই মন্তব্য করেছেন। কেউ লিখেছেন, আমি বুঝি না অন্য কে ছোট করে কি মজা পায়! অহংকার মানুষকে ধ্বংস করে, আরেক নেটিজেন লিখেছেন, ওদের তো মানসিক সমস্যা আছে। অন্যদিকে চিত্রনায়িকা শিরিন শিলা মন্তব্য করে বলেন, অহংকার পতনের মূল। যারা অহংকার করে অন্যকে ছোট করে, তারা কোনদিন বড় হতে পারবে না। এছাড়া দিশাকে সমর্থন বা শুভ কামনা প্রকাশ করেন অনেক মন্তব্যকারী।

উল্লেখ্য, প্রয়াত মঞ্চ ও টেলিভিশন অভিনেতা আব্দুল কাদেরের নাতনি এই সিমরিন লুবাবা। দাদার অভিনয় দেখে এবং তার অনুপ্রেরণায় শোবিজ অঙ্গনে আসলেও দাদার মতো অভিনয় দিয়ে দর্শকদের মন জয় করতে পারেনি এখনও।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ
© All rights reserved © 2018 jamjamat.net
ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট : উইন্সার বাংলাদেশ