বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৬:০৫ অপরাহ্ন
Uncategorized

‘দর্শকের কথা চিন্তা করে কাজ করতে হবে’

জমজমাট ডেস্ক
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২০

শারমিন জোহা শশী। সাবলীল অভিনয় গুণে দর্শকদের প্রথম থেকেই মুগ্ধ করছেন এই অভিনেত্রী। তার শুরুটা শিশুশিল্পী হিসেবে হলেও পরবর্তীতে কাজ করেন চলচ্চিত্রে। খ্যাতিমান অভিনেত্রী কোহিনূর আক্তার সুচন্দার ‘হাজার বছর ধরে’ চলচ্চিত্রের মধ্য দিয়ে দর্শকের সামনে নিজেকে মেলে ধরেন। প্রথম চলচ্চিত্র দিয়ে দর্শক ও বোদ্ধাদের প্রশংসায় ভূষিত হন। সে সময় অনেক নির্মাতা চলচ্চিত্রের জন্য দারুণ সম্ভাবনাময়ী নায়িকা বলেও মন্তব্য করেন। কিন্ত শশী এক চলচ্চিত্রের ওপরই স্থির থাকেন। শশী পাঁচ বছর বয়সে নাচ শেখার জন্য ভর্তি হন শিশু একাডেমিতে। নূপুরের ঝমঝম ছন্দে বেশ কয়েক বছর রংপুরের টাউন হলে নৃত্যে মাতিয়ে রেখেছিলেন সবাইকে। এরপর পড়াশোনা আর অভিনয় নিয়ে অনেকখানি ব্যস্ত হয়ে পড়েন। অভিনয়ের ব্যস্ততার কারণে নূপুরের ঝমঝম ছন্দ ভুলতে বসেছেন তিনি।

দীর্ঘ বিরতির পর সম্প্রতি নতুন সিনেমায় যুক্ত হলেন জনপ্রিয় এ অভিনয় শিল্পী। ‘ছায়াবাজি’ শিরোনামের ছবিটি পরিচালনা করছেন সোলায়মান জুয়েল। বর্তমানে চলছে ছবির চিত্রায়ন। ছবিটি নিয়ে শশী বলেন, লম্বা বিরতির পর সিনেমায় কাজ করছি। এতোদিন ভালো গল্প পাইনি বলে দর্শক চলচ্চিত্রে দেখতে পায়নি। বাংলাদেশে সাইকোলজিক্যাল থ্রিলার সিনেমা খুব একটা দেখা যায় না। ‘ছায়াবাজি’ সেই তালিকার একটি ছবি হতে যাচ্ছে। গল্পটি দর্শককে বিনোদিত করবে। নিজের সর্বোচ্চ দিয়ে চেষ্টা করছি চরিত্রটি দর্শকের প্রত্যাশা অনুযায়ী ফুটিয়ে তুলতে। ইমপ্রেস টেলিফিল্মের ব্যানারে নির্মিত হচ্ছে ছবিটি। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী বছর এই সিনেমাটি মুক্তি পাবে।

শশী বর্তমানে ছোটপর্দায় নিয়মিত। কাজ করছেন একক, টেলিফিল্ম ও ধারাবাহিক নাটকে। প্রথম ছবির পর আর কোনো চলচ্চিত্রে তাকে দেখা যায়নি। এই নিয়ে কোনো আক্ষেপ নেই তার। শশীর ভাষ্য, আমি নিয়মিত অভিনয় করছি। বরাবরই বিভিন্ন ধরনের চরিত্রেই অভিনয় করছি। পার্থক্য শুধু আমাদের পর্দা। সত্যি বলতে, একজন অভিনয় শিল্পীর পর্দা ভাগ করতে হয় না বলেই আমি মনে করি। ছোট পর্দায়ও দর্শকের মনে থাকার মতো অনেক কাজ হয়। আমি শুধু বড়পর্দায় কাজ করলে দর্শক মনে রাখবে এমনটা ভাবা ঠিক না। আমার কাজই দর্শকের মাঝে আমাকে বাঁচিয়ে রাখবে। শশী মনে করেন দর্শকের কথা চিন্তা করে সিনেমায় কাজ করতে হবে। সব ধরনের দর্শকের কথাই মাথায় রাখতে হবে। ক্যারিয়ারের শুরু থেকে আজ পর্যন্ত কখনোই মাসে ত্রিশ দিন কাজ করেননি তিনি। বেছে বেছে গল্প ও চরিত্র পছন্দ হলেই কাজ করছেন। একটানা কাজ করতে পারেন না শশী। এক চরিত্র থেকে বেরিয়ে অন্য চরিত্র ধারণ করতে সময় নেন।

অভিনয় আসার গল্প জানতে চাইলে তিনি বলেন, কখনোই অভিনয় আসতে চাইনি। দশম শ্রেণিতে পড়াকালীন অভিনয় করি ‘হাজার বছর ধরে’ চলচ্চিত্রে। সে সময় অনেক কমার্শিয়াল ছবির প্রস্তাব আসে। তবে বাবা মা চেয়েছেন একটু সময় নিয়ে কাজ করি। মনের মতো গল্প ও চরিত্র না পাওয়ার কারণে তারপর আর ছবিতে দেখা যায়নি। যার জন্য নাটকে নিয়মিত কাজ করছেন। ভালো ছবির অপেক্ষায় শশী। নাটকে শশী চেষ্টা করেন নিত্য নতুন চরিত্রে অভিনয়ের।

‘হাজার বছর ধরে’ ছবি করার পর অসংখ্য কাজ করলেও আজ পর্যন্ত ঐ ছবির জনপ্রিয়তার রেশ এখনও রয়েছে। টুনি চরিত্রে অনবদ্য অভিনয় এখনও সাড়া পান তিনি। ছবিটিতে নিজেকে মেলে ধরার সুযোগ পেয়েছিলেন তিনি। এক ছবিতে বেশ কয়েকটি চরিত্রে অভিনয় করতে হয়েছে। এখান থেকে অনেক কিছু শিখেছেন বলে জানান। ঘুমাতে পছন্দ করেন শশী। সময় পেলেই ঘুমিয়ে পড়েন। বলছিলেন অপেক্ষায় আছেন। কি ধরনের চলচ্চিত্রের অপেক্ষায়? চলচ্চিত্রের জন্য নয় একটি চরিত্রের অপেক্ষা করছি। যেদিন চরিত্রটি পাবেন সেদিন কাজ করবেন। টালিউডের চারু লতা’র মতো একটি চরিত্রে কাজ করতে চান। তিনি দর্শকের ভালোবাসার জন্য কাজ করবেন। শশীর প্রাপ্তি দর্শকের ভালোবাসা। অবসর সময় চেষ্টা করেন সিনেমা দেখার। অভিনয় না আসলে শশী নৃত্যে শিল্পী হিসেবে নিজেকে মেলে ধরার চেষ্টা করতেন। সিনেমায় নাম লিখিয়েই বাজিমাত করেন শশী। আমৃত্য অভিনয় করে যেতে চান। দর্শকের চাহিদার কথা চিন্তা করেই কাজ করবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ

পুরাতন খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  
© All rights reserved © 2018 jamjamat.net
ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট : উইন্সার বাংলাদেশ