রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০৭:৫৪ পূর্বাহ্ন
Uncategorized

শ্যুটিং হাউজ মালিকদের বিরুদ্ধে নির্মাতা ফুয়াদের ক্ষোভ ও ফেবু স্ট্যাটাস

জমজমাট ডেস্ক
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২ জুন, ২০২২

রঞ্জু সরকার

করোনার কারণে নাটক নির্মাণ প্রায় দুই বছর শুটিং স্থগিত ছিল। আবার নতুন করে যখন কাজ শুরু করছে নাট্য নির্মাতাগন, তখন থেকেই শুটিং হাউজ মালিকরা নিজেদের স্বার্থে নিত্য নতুন নিয়ম-নীতি তৈরি করে নাটক নির্মানে বাঁধ তৈরি করছে আসছে।

বেশ কয়েকমাস ধরেই বিষয়টি নিয়ে ডিরেক্টর গিল্ড এবং অভিনয় শিল্পী সংঘ  হাউজ মালিকদের বোঝাতে  চেষ্টা করছে। কিন্তু তারা কোনো কথার তোয়াক্কা না করেই নিজেদের খেয়াল খুশীমতো হাউজ চালাচ্ছে।

হাউজ মালিকদের যথেচ্ছাচারে অতিষ্ঠ হয়েই এবার দুই শ্যুটিং হাউজ মালিকের উপর একহাত নিলেন নির্মাতা ফুয়াদ। নিজের ফেইসবুক আইডিতে স্ট্যাটাস দিয়ে তিনি লিখেছেন, ”বাংলাদেশের সব নাট্য নির্মাতারা এখন জিম্মি আমার মতে….

হাউজ মালিক চক্র তাদের সার্থ (স্বার্থ) সিদ্ধি এর জন্যে একটা চক্র তৈরী করছে যা এখন আসলে পেশি শক্তি ছাড়া নির্মূল করা অসম্ভব, কিন্তু ভাই আমরা পরিচালক, আমরা পেশি শক্তি দেখাতে আসি নাই ক্রিয়েটিভি আমাদের মূল অস্ত্র এবং এইটাই আমাদের সম্ভল (সম্বল)’।

তিনি আরও লিখেছেন, ‘আপনারা যদি ঠিকই আপানাদের শ্রমের যৌক্তিক এবং ঠিকঠাক সব চাইতেন আমি আমরা অবশ্যই আপনাদের বিপক্ষে না, আমরাও চাই আপনারা ঠিকঠাক কাজ করে ঠিকঠাক পারিশ্রমিক নিয়ে বাসায় ফিরে ঠিকঠাক ভাবে কাজে মনোযোগী হয়ে আমাদের সহোযোগিতা করেন… কিন্তু এখন কিছু কু চক্র আমি নাম উল্লেখ্য করেই বলি

হাউজ মালিক আলিম, হাউজ মালিক মিন্টু এবং ড্রাইভার আনোয়ার এরা চায় আমাদের জিম্মি করে ওদের কাছে আমাদের পা চাটাতে, আমরা নাকি আর্টিষ্ট এর পা চাটি ওদের কেন চাটি না!!! যাদের আসলে ব্যাকবোন্ড (ব্যাকবোন) আছে কিনা আমার জানা নাই…

আরে ভাই যদি আমাদের ভালই চাইতেন তাহলে আসেন আপনারা আপনাদের পারিশ্রমিক তিন শিফটে ভাগ করে ফেলেন

অবশ্য সেইটা আপনারা করবেন না তাতে আপনাদের লস… আর সেই লস পোষানো আর আমাদের ডিরেক্টারদের জিম্মি করে আপনারা ক্ষমতা দেখানোর জন্যে আপনাদের এই আয়োজন আর বাকি সব ভুয়া, যদি আপনারা এইটা করেন তাতে লস টা যেইটা হবে
একটা উদাহরন টানি

আমি আগামী কাল এবং আজ মিলায়ে একটা নাটক
করেছি যার সিংহ ভাগই আউটডোড় আর তিনটা দৃশ্য মাত্র হাউজে

আর আমি সারাদিন বাইরে বাইরে শুট করে মিন্টুর ৯ নাম্বার হাউযে শুটে এসেছিলাম রাতে আমার সব দৃশ্য শেষ হয়ে গেলেও ওরা আমাকে একটা শর্ট শেষ করতে দেয় নাই, বাধ্য হয়েছি না করেই মেকয়াপ (প্যাকআপ) করতে, তাতে করে কারো কোন লস হয় নাই… হাউজ আরেকদিনের পেমেন্ট পাবে, লাইট গাড়ি ও অন্যান্য আরেকদিনের পেমেন্ট পাবে তাতে করে আমার লস, কারব প্রোডইউসার যা বাজেট দিসে তাতেই আমার শেষ করতে হবে৷ বাড়তি উনি দিবে না। আর ওদের লাভ সারাদি হ্যালায়ে ধোলায়ে (হেলিয়ে দুলিয়ে)  শুট ১১ টার পর নিতে পারলেই আরেকদিনের পেমেন্ট দাড়িয়ে যাবে, কেউ ছাড় দিবে না আর এই গেইমটাই ওরা খেলছে।

কারন এতে হাউজ মালিক দের লাভ… কারন শিফট হলে আমি বিকালের শিফট নিতাম তাতে হাউজ মালিক সারাদিন হাউজ না ব্যাবহার না করা শর্তেও এই হারাম টাকা নিতে পারতো না।

তা না হলে সব কিছু কেন শিফটে আসবে না?!?!
সারদিন বউ আর গার্লফ্রেন্ড, পরবর্তী কাজের শিডিউল অন্যান ফোন আলাপ এই সব এর লস টাইম,
কেন ডিরেক্টর নিবে?
ভাই ইন্ড্রাষ্টির ভাল চাইলে শিফটে আসেন… দুই একটা লোক যাদের নিজেদের স্বার্থ সিদ্ধির জন্যে আমাদের পরিচালক দের হেনস্তা করতেছে এইটার পরিত্রান হওয়া উচিৎ।ওরা ডিরেক্ট বলে বালের পরিচালক
এরা আমাদের বাল ছিরুক
এইটা কোন কথা?????
লজ্জায় সুইশাইড (সুইসাইড) করতে মন চায়, সব ছেড়ে দিয়ে ডিরেক্সান (ডিরেকশন) দিতে এসে এই সব আর নিতে পারতেছিনা
তাই এই স্টেটাস (স্ট্যাটাস) দিলা (দিলাম)
@alim
@Mintu Khan

আপনারা আমাদের জিম্মি করা ছেড়ে একটু আমাদের কথা ভাবেন, আমরা পরিচালক কাজ না করলে আপনাদের সংসার চলবে না এইটা না বোঝলে কিভাবে হবে?
আমি জানি আজকের পরে আমাকে কাজ করতে দিবেন না
… আপনাদের চক্র অনেক শক্ত
আর না বোঝার দল
হুমকি দিনে ধামকি দিবেন এইটাই স্বাভাবিক।
আমার ব্যাক্তিগত সব ক্ষয়ক্ষতির জন্যে আলিম দায়ী”।

জীবন নাশের হুমকি

এর পরপরই প্রায় দশ মিনিটের ব্যাবধানে পূর্বে প্রদত্ত আরেকটি স্ট্যাটাট শেয়ার করে আবার নিজের ফেসকুকে লেখেন, ”এইটা আগের স্টেটাস
অনেক রিকুয়েষ্ট এবং সমাধানের পরে only me করে রেখেছিলাম
কিন্তু এখন আজকের স্যেয়াস দেওয়ার আগেই ওরা আমাকে জীবন নাশের হুমকি দিচ্ছে আর এই ইন্ড্রাষ্টিতে কাজ কিভাবে করি সেইটার জন্যে হুমকি দিচ্ছে Mintu Khan
আর Md Abdul Alim যা করতেছে
আমি এখন একটু অনিশ্বয়তার মধ্যে আছি আমার স্বাভাবিক জীবন নিয়ে”।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ
© All rights reserved © 2018 jamjamat.net
ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট : উইন্সার বাংলাদেশ