রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ০৮:৩৫ অপরাহ্ন

‘সাবেক স্ত্রীর সঙ্গে কথা বলায় দুই গ্রুপের সংঘর্ষ’ দুই পুলিশসহ আহত ১৫!

জমজমাট ডেস্ক
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১১ জুন, ২০২৪

জমজমাট ডেস্ক

মাদারীপুরে সাবেক স্ত্রীর সঙ্গে কথা বলার জের ধরে দুই গ্রুপের মধ্যে চলে ব্যাপক সংঘর্ষ। সংঘর্ষে প্রায় অর্ধশত ককটেল বিস্ফোরণ হয়। প্রায় পাঁচ ঘন্টা পর ঘটনাটি নিয়ন্ত্রনে আসে। এই ঘটনার পর থেকে পুরো এলাকা জুড়ে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

পুলিশ ঘটনা স্থলে উপস্থিত হলে অবস্থা বেগতিক দেখে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ফাঁকা গুলি ছুড়ে । সংঘর্ষে দুই পুলিশসহ আহত হয়েছে অন্তত ১৫ জন । এ ঘটনায় আটক করা হয়েছে ১৮ জনকে। সোমবার (১০ জুন) রাতে সদর উপজেলার পূর্বরাস্তি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করায় মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ।

পুলিশ জানায়, প্রেমের সম্পর্কের জেরে দেড় বছর আগে মাদারীপুর সদর উপজেলার পূর্বরাস্তি গ্রামের আক্কাস মুন্সির ছেলে অপু মুন্সির সঙ্গে শহরের বিসিক শিল্পনগরী এলাকার বাদশা বেপারীর মেয়ে নিশি আক্তারের বিয়ে হয়। পারিবারিক কলহের কারণে ছয় মাস আগে তাদের বিবাহবিচ্ছেদ হয়। সোমবার বিকেলে বাড়ির কাছে হঠাৎ দেখা হলে নিশির সঙ্গে কথা বলেন অপু।

বিষয়টি জানতে পেরে ক্ষিপ্ত হয়ে নিশির পরিবারের লোকজন অপুকে মারধর করেন। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে পূর্বরাস্তি এলাকায় দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে দুইপক্ষ। এ সময় প্রায় অর্ধশত ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত চলে দফায় দাফয় সংঘর্ষ। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে অবস্থা বেগতিক দেখে ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রেনে আনেন। সংঘর্ষে দুই পুলিশ সদস্যসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়। ঘটনাস্থল থেকে ১৮ জনকে আটক করা হয়েছে। আর এ ব্যাপারে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছে পুলিশ।

এদিকে পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) নজরুল ইসলামসহ আহত দুই পুলিশ সদস্যকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী কহিনুর বেগম বলেন, হঠাৎ চারদিক থেকে শত শত লোকজন এসে মারামারিতে জড়িয়ে পড়ে। ভয়ে দরজা বন্ধ করে দেই। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। মূলত প্রেমিক-প্রেমিকা দুই গ্রুপ এ সংঘর্ষে জড়ায়।

স্থানীয় বাসিন্দা ফাতেমা বেগম বলেন, শত শত মানুষ ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু করে। টিনের চালের ওপর ককটেল বিস্ফোরণের শব্দে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়।পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ঘরের ভেতর থাকি। পুলিশ প্রায় আড়াই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

আরেক প্রত্যক্ষদর্শী মাহিন্দ্র চালক বলেন, আমার গাড়িটি পার্কিং করা ছিল। একদল দুর্বৃত্ত গাড়িটি ভাঙচুর করে। থানা থেকে পুলিশ আমার গাড়ি নিয়ে ঘটনাস্থলে আসে। আমি গরিব মানুষ, এ ঘটনার বিচার চাই।

মাদারীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ এইচ এম সালাউদ্দিন জানান, সংঘর্ষ থামাতে প্রায় ২২ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়তে হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত ১৮ জনকে আটক করা হয়েছে। পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় মামলা দায়েরের পর আটকদের আদালতে তোলা হবে। এছাড়া এ ঘটনায় জড়িতদের আটক করতে পুলিশের অভিযান চলছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ

পুরাতন খবর

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
© All rights reserved © 2018 jamjamat.net
ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট : উইন্সার বাংলাদেশ