রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০১:৩৭ পূর্বাহ্ন

শহরজুড়ে গোয়েন্দা জাল: সরকারি কর্মচারী কর্মকর্তাদের দিকে বিপদ ধেয়ে আসছে

জমজমাট ডেস্ক
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ৯ জুলাই, ২০২৪

সালাহ্ উদ্দিন শোয়েব চৌধুরী

এই ঢাকা শহরে প্রায় সত্তুরভাগ বাড়ি কিংবা ফ্ল্যাটের মালিক সরকারি কর্মচারী কর্মকর্তারা। মার্কেটগুলোর দোকানের ক্ষেতেও একই অবস্থা। এমন ভয়াবহ তথ্যের ভিত্তিতে এরইমাঝে শহরজুড়ে গোয়েন্দা জাল বিছিয়েছে বিশেষ একটা গোয়েন্দা সংস্থা। মিরপুর-পল্লবী থেকে শুরু করে লালমাটিয়া, জিগাতলা, ধানমন্ডি, বারিধারা, গুলশান, বনানী, বসুন্ধরা, নিকেতন, বাড্ডা, নিকুঞ্জ, উত্তরাসহ সারা শহরে বাড়ি, ফ্ল্যাট ও দোকানের মালিকানার তথ্য সংগ্রহের কাজ শুরু হয়ে গেছে। ব্যাংক এবং শেয়ার মার্কেটেও খোঁজখবর নেয়ার কাজ চলছে। পুরো এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন হতে হয়তো মাস ছয়েক সময় লাগবে। কিন্তু ক্রমশ প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে শুরু হবে পাকড়াও অভিযান।

আরো জানা গেছে, শুধু ঢাকা শহরেই নয়, অন্য শহরগুলোতেও একই দৃশ্য। অধিকাংশ বাড়ি, ফ্ল্যাট এবং দোকানের মালিক সরকারি কর্মচারী কর্মকর্তারা। সবমিলিয়ে দূর্নীতিলব্ধ এসব সম্পদের পরিমাণ কয়েক লাখ কোটি টাকা।

দেশের ভেতরে সরকারি কর্মচারী কর্মকর্তাদের সম্পদের খোঁজ নেয়ার পাশাপাশি বিদেশে যারা সেকেন্ড হোম গড়েছেন, নাগরিকত্ব কিনেছেন কিংবা ভুঁয়া ডিগ্রি মিল থেকে পিএইচডি ডিগ্রি কিনেছেন, এসব তথ্যও সংগ্রহ করা হচ্ছে। যেসব সরকারি কর্মকর্তা ডিগ্রি মিল থেকে পিএইচডি ডিগ্রি কিনেছেন ওনাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে – চাকরি হারাবেন এরা সবাই। আর যারা বিদেশে সেকেন্ড হোম গড়েছেন কিংবা নাগরিকত্ব কিনেছেন, এদের সবার জন্যে অপেক্ষা করছে কঠোর ব্যবস্থা।

জানা গেছে, ক্যারিবীয় দেশগুলোয় কয়েক হাজার বাংলাদেশি নাগরিক ১-৩ লাখ ডলার খরচ করে নাগরিকত্ব কিনেছেন। এসব টাকা গেছে অবৈধ পথে। তারমানে, একই ঘটনায় দুটো মামলা। দুর্নীতি এবং টাকা পাচার। যারা বিদেশে সেকেন্ড হোম গড়েছেন কিংবা নাগরিকত্ব কিনেছেন, তাঁদের সবার বাংলাদেশে থাকা সব সম্পদ বাজেয়াপ্তের পাশাপাশি এদের বিদেশ ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ হবে।

আরো জানা গেছে, ঢাকাসহ বড় শহরগুলোর অভিজাত হোটেল, রেস্তোরাঁ এবং ক্লাবে যারা নিয়মিত যাতায়াত করেন, ওনাদের ওপর আধুনিক প্রযুক্তির সাহায্যে নজরদারি শুরু হচ্ছে। প্রতি মাসে কে কোথায় কতো খরচ করেন এসব তথ্য সংগ্রহ করা হবে।

বাংলাদেশের অনেক লোক অকারণে কিংবা নেহায়েত ঘুরতে প্রায় নিয়মিত বিভিন্ন দেশে যান এবং এসব তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করেন। এই দলে বিনোদন জগতের কিছু সদস্যও আছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করা ওসব তথ্যের ভিত্তিতে সবার ইনকাম ট্যাক্সের নথি খতিয়ে দেখা হবে। বিনোদন জগতের যেসব সদস্য কারণে-অকারণে বারবার বিদেশে যাতায়াত করেন ওনাদের আয়ের উৎস খতিয়ে দেখার পাশাপাশি এদের ওপর সঠিক মাত্রায় আয়কর আরোপ করা হবে। আর কেউ তাদের ঘনঘন বিদেশ সফর সম্পর্কে সন্তোষজনক কোনো কারণ দেখাতে ব্যর্থ হলে ওদের পাসপোর্ট বাজেয়াপ্তের পাশাপাশি ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে।

নির্ভরযোগ্য একটা সূত্রমতে, ঢাকাসহ বিভিন্ন শহরে সরকারি কর্মচারী কর্মকর্তাদের বাড়ি, ফ্ল্যাট এবং দোকানের তথ্য সংগ্রহের পর এদের প্রত্যেককে নোটিশ দিয়ে অর্জিত সম্পদের বিষয়ে ব্যাখ্যা চাওয়া হবে। যারা সন্তোষজনক ব্যাখ্যা দিতে ব্যর্থ হবেন ওনাদের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করা হবে। মোদ্দা কথায় সরকারি কর্মচারী কর্মকর্তাদের দিকে বিপদ ধেয়ে আসছে!

 

সালাহ্ উদ্দিন শোয়েব চৌধুরী , আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন একাধিক পুরস্কারপ্রাপ্ত জঙ্গিবাদ বিরোধী সাংবাদিক,কাউন্টারটেররিজম বিশেষজ্ঞ, রাজনৈতিক বিশ্লেষক প্রভাবশালী ইংরেজি পত্রিকা ব্লিটজএর সম্পাদক।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ
© All rights reserved © 2018 jamjamat.net
ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট : উইন্সার বাংলাদেশ